• বুধ. ফেব্রু ১, ২০২৩

অর্থোডক্স বড়দিনে রাশিয়ার গোলার আঘাতে কেঁপে উঠল বাখমুত

জানু ৮, ২০২৩

অর্থোডক্স বড়দিনে রাশিয়ার গোলার আঘাতে কেঁপে উঠল বাখমুত

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন অর্থোডক্স ক্রিসমাস পালনের জন্য

শুক্রবার মধ্যরাত থেকে শনিবার মধ্যরাত পর্যন্ত ৩৬ ঘণ্টার যুদ্ধবিরতির ঘোষণা

দেয়া সত্ত্বেও শনিবার মুহুর্মুহু গোলার আঘাতে কেঁপে উঠল পূর্ব ইউক্রেনীয় শহর বাখমুত।

ফ্রন্ট লাইন বাখমুতের উভয় দিকে আর্টিলারি ফায়ারের শব্দ শোনা যায়,

যেখানে রাশিয়ার বাহিনী তাদের বেশিরভাগ গোলন্দাজ শক্তিকে

ক্রামতোর্স্কের দিকে, অর্থাৎ পশ্চিম দিকে ঠেলে দেয়ার চেষ্টা করে।

একসময় ৭০ হাজার জনসংখ্যার বাখমুতের বেশিরভাগই এখন পরিত্যক্ত একটি শহরে পরিণত হয়েছে।

স্বেচ্ছাসেবকরা ছাড়া বলতে গেলে মানুষজন আর কেউই সেখানে নেই। হয় তারা মারা গেছে, কিংবা পালিয়ে গেছে।

হেলমেট ও ফ্ল্যাক জ্যাকেট পরা ভ্যাসিল লিসলিন নামে একজন মানবিক

স্বেচ্ছাসেবক বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলেন, গতকাল যখন আমরা

১৫-২০ মিনিটের জন্য আরেকটি অপরাজেয় পয়েন্ট পরিদর্শন করি,

ঠিক তখনই একটি রকেট এসে আমাদের আঘাত করে। এটি একটি

স্বেচ্ছাসেবকের গাড়িকে ক্ষতিগ্রস্ত করে, একজন নিহত হন এবং চারজন আহত হন।

ইউক্রেনীয় সশস্ত্র বাহিনীর সাধারণ কর্মীরা জানিয়েছেন, রাশিয়া

ফ্রন্ট লাইন বরাবর কয়েক ডজন জায়গায় গোলাবর্ষণ অব্যাহত রেখেছে।

তবে, রাশিয়া বলেছে, গুলি চালানো হলেই কেবল তারা পাল্টা গুলি করছে।

রাশিয়ার ওয়াগনার ভাড়াটে গোষ্ঠী বাখমুতের যুদ্ধে নিয়মিত রাশিয়ার

সেনাবাহিনীর সাথে লড়াই করছে। ওয়াগনার এর প্রতিষ্ঠাতা ইয়েভজেনি

প্রিগোজিন টেলিগ্রামে বলেন, তিনি ছোট শহরটি দখল করতে চেয়েছিলেন,

কারণ সেখানে একটি ‘ভূগর্ভস্থ শহর’ রয়েছে, যেখানে সৈন্য এবং ট্যাঙ্ক মজুদ রাখা যেতে পারে।

তার মন্তব্য এই বিষয়টিকে তুলে ধরে যে ওই এলাকায় রয়েছে বিস্তীর্ণ

লবণ এবং অন্যান্য খনি, যেখানে ১০০ মাইলেরও বেশি সুড়ঙ্গ এবং

একটি বিস্তীর্ণ ভূগর্ভস্থ কক্ষ রয়েছে। শান্তিপূর্ণ সময়ে যেখানে

ফুটবল ম্যাচ এবং শাস্ত্রীয় সঙ্গীতের কনসার্টের আয়োজন করা হতো।

প্রিগোজিন, বাখমুতকে অনন্য প্রতিরক্ষামূলক দুর্গের সাথে ‘একটি গুরুতর রসদ কেন্দ্র’ হিসেবেও উল্লেখ করেন।

এছাড়া, ইউক্রেনের অন্যান্য অংশেও লড়াই অব্যাহত রয়েছে।

যদিও রুশ কর্মকর্তারা জোর দিয়ে বলেন, যুদ্ধবিরতি অক্ষুণ্ণ রয়েছে।

তবে কোথাও উল্লেখযোগ্য স্থবিরতার কোনো ইঙ্গিত নেই।

ব্রিটেনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় শনিবার হাল নাগাদ এক গোয়েন্দা

প্রতিবেদনে বলেছে, অর্থোডক্স ক্রিসমাস সময়কালেও নিয়মিতভাবে

লড়াই অব্যাহত রয়েছে। লুহানস্ক ও ব্লাস্টের ক্রেমিনা শহরের আশপাশের

এলাকা সবচেয়ে তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ যুদ্ধক্ষেত্র যেখানে লড়াই অব্যাহত ছিল।

রাশিয়ান অর্থোডক্স চার্চ, ইস্টার্ন অর্থোডক্স চার্চগুলির মধ্যে বৃহত্তম,

জুলিয়ান ক্যালেন্ডার অনুসারে যারা ৭ জানুয়ারী বড়দিন উদযাপন করে।

ইউক্রেনের কিছু লোক ২৫ ডিসেম্বর এবং অন্যরা ৭ জানুয়ারী

ক্রিসমাস উদযাপন করেন। উভয় দিনই দেশটিতে সরকারি ছুটির দিন।

এই বছর, প্রথমবারের মতো, ইউক্রেনের অর্থোডক্স চার্চ বলেছে,

তারা রাশিয়া থেকে সাংস্কৃতিক ও ধর্মীয়ভাবে নিজেকে আলাদা

করার প্রয়াসে, পশ্চিম ইউক্রেনের অন্যান্য সম্প্রদায়ের মতো ২৫ ডিসেম্বর বড়দিন উদযাপনের অনুমতি দেবে।

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ক্রেমলিন ক্যাথেড্রালের

একটি ধর্মীয় আচারে অর্থোডক্স ক্রিসমাস পালন করেছেন।

ওই গির্জায় মধ্যরাতের উপাসনায় পুতিনই ছিলেন একমাত্র উপাসক।

উল্লেখ্য, রাশিয়ার অর্থোডক্স গির্জা ইউক্রেনে রাশিয়ার আক্রমণকে সমর্থন করে।

পুতিন তার অর্থোডক্স ক্রিসমাস বার্তায় ইউক্রেনে যুদ্ধরত মস্কোর বাহিনীকে সমর্থন করার জন্য রাশিয়ার অর্থোডক্স চার্চের প্রশংসা করেন।

আরও আপডেট নিউজ জানতে ভিজিট করুন