• শনি. জানু ২৮, ২০২৩

আন্তোনিও থেকে ‘মোহাম্মদ আলফাতিহ’ হলেন মার্কিন পর্যটক

ডিসে ৪, ২০২২

আন্তোনিও থেকে ‘মোহাম্মদ আলফাতিহ’ হলেন মার্কিন পর্যটক

তুরস্কের ঐতিহাসিক আয়া সোফিয়া মসজিদে একটি

কোরআন পাঠ ও দোয়া অনুষ্ঠান চলছিল। ঠিক এমন

সময়ই সেখানে প্রবেশ করেন মার্কিন পর্যটক আন্তোনিও।

দোয়া অনুষ্ঠানের দৃশ্য দেখে অভিভূত হন তিনি এবং তখনই

ইসলাম গ্রহণের ইচ্ছা প্রকাশ করেন।

সোমবার আলজাজিরা জানায়, এরপর কালেমায়ে

শাহাদাত পাঠ করে আন্তোনিও ইসলামে প্রবেশ করেন। শুধু

তাই নয়; মুসলিম হওয়ার পর তিনি ইস্তাম্বুল বিজেতা

সুলতান মোহাম্মদ আলফাতিহের নামে নিজে নাম ধারণ করেন।

তিনি আনুষ্ঠানিকভাবে ইসলামে প্রবেশের সময় আয়া

সোফিয়ায় উপস্থিত অন্যরা তাকবির ধ্বনি দিয়ে তাকে অভিবাদন জানান।

ইতোমধ্যে এ সংক্রান্ত একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ব্যাপকহারে ছড়িয়ে পড়েছে।

তুর্কি সংবাদমাধ্যমগুলো জানায়, ওই দিন আয়া সোফিয়ায়

গত অক্টোবরে দেশটির বার্তিন প্রদেশের কয়লার খনিতে

নিহতদের আত্মার মাগফিরাত কামনায় পবিত্র কোরআন

পাঠ ও একটি দোয়া অনুষ্ঠান চলছিল। এমন সময় আন্তোনিও সেখানে প্রবেশ করেন।

প্রসঙ্গত, সুলতান মোহাম্মদ আলফাতিহ ১৪৫৩ সালে ইস্তাম্বুল বিজয় করেন।

এর আগ পর্যন্ত ৯১৬ বছর আয়া সোফিয়া খ্রিস্টানদের

গির্জা হিসেবে ব্যবহৃত হয়। এরপর ১৯৩৪ সাল পর্যন্ত প্রায়

৫০০ বছর তা মসজিদ হিসেবে ব্যবহৃত হয়। এরপর থেকে

৮৬ বছর ঐতিহাসিক এ স্থাপনাকে জাদুঘর হিসেবে ব্যবহার করা হয়।

১৯৮৫ সালে ইউনেসকোর বিশ্ব ঐতিহ্যের তালিকাভুক্ত হয় এই স্থাপনা।

২০২০ সালে তা পুনরায় মসজিদের রূপে ফিরে যায়।

মসজিদ হলেও তা সব ধর্মের পর্যটকের জন্য উন্মুক্ত

রয়েছে। দীর্ঘ ৮৬ বছর পর ২০২০ সালের ২৪ জুলাই

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়েব এরদোগানের

উপস্থিতিতে তাতে প্রথম জুমার নামাজ অনুষ্ঠিত হয়।

তুরস্কের সবচেয়ে বেশি দর্শনীয় স্থাপনাগুলোর মধ্যে ১৫০০ বছরের পুরনো এ স্থানটি অন্যতম।

সূত্র : আলজাজিরা

আরও আপডেট নিউজ জানতে ভিজিট করুন