• বুধ. ফেব্রু ১, ২০২৩

এমবাপ্পে ক্ষেপলেন জিদানকে অপমান করায় 

জানু ১০, ২০২৩

এমবাপ্পে ক্ষেপলেন জিদানকে অপমান করায়

কিংবদন্তির ফুটবলার জিনেদিন জিদানকে নিয়ে ফরাসি ফুটবল

সংস্থার প্রধান নোয়েল লে গ্রায়েতের বিতর্কিত মন্তব্য নিয়ে উত্তাল

দেশটির ফুটবলমহল। পরিস্থিতি সামাল দিতে গ্রায়েত নিজের বক্তব্যের

জন্য ক্ষমাও চেয়ে নিয়েছেন। এর মধ্যেই নিজের ক্ষোভের কথা প্রকাশ

করলেন সদ্য সমাপ্ত বিশ্বকাপে তোলপাড় সৃষ্টিকারী কিলিয়ান এমবাপ্পে।

কাতার বিশ্বকাপের পরেই জিদানের ফ্রান্স জাতীয় দলের কোচ হওয়ার

সম্ভাবনা উজ্জ্বল ছিল বলে দাবি করেছিল ফরাসি সংবাদমাধ্যম।

কিন্তু দিদিয়ে দেশঁ-র ওপরেই শেষ পর্যন্ত আস্থা রাখলেন ফরাসি ফুটবল

সংস্থার কর্মকর্তারা। ২০২৬ বিশ্বকাপ পর্যন্ত তাকেই কোচের দায়িত্বে রেখে দেয়া হয়েছে।

জিদানকে কোচ করার বিষয়ে ইতিমধ্য আগ্রহ প্রকাশ করেছে ব্রাজিল

ফুটবল সংস্থাও। গত সপ্তাহে সংবাদমাধ্যমে দেয়া সাক্ষাৎকারে

গ্রায়েত বলেন, ‘জিদান ব্রাজিলের কোচ হবেন? হলেও আমার কিছু

আসে–যায় না। তিনি যা ইচ্ছে করতে পারেন। যেখানে ইচ্ছে যেতে

পারেন। এটা আমার ভাবার বিষয় নয়। তার সাথে কখনোই আমার এই

বিষয়ে আলোচনা হয়নি। অন্তত ও আমাকে ফোন করলে সেটা ধরব না।’

তিনি আরো বলেন, ‘দেশঁ-র সাথে বিচ্ছেদের কথা আমরা ভাবিনিওনি।

আমি জানি না, এগিয়ে যাওয়া বলতে কী বোঝানো হচ্ছে। হ্যাঁ, ফ্রান্সের

কোচ হওয়ার দৌড়ে জিদান ছিলেন। তার অনেক সমর্থকও রয়েছেন।

কেউ কেউ তো অপেক্ষা করেছেন দেশঁ কত দ্রুত চলে যাবেন তার জন্য।

কিন্তু তাকে দোষারোপ করার জায়গা কোথায়?’

জিদান সম্পর্কে এমন বিতর্কিত মন্তব্যে খুশি হতে পারেননি কিলিয়ান এমবাপ্পে।

ফরাসি তারকা গণমাধ্যমে লিখেছেন, ‘জিদান মানেই ফ্রান্স।

তার মতো কিংবদন্তিকে এভাবে আমরা অপমান করতে পারি না।’

রিয়াল মাদ্রিদের পক্ষ থেকেও এমন অবমাননাকর মন্তব্যের প্রতিবাদ

জানানো হয়েছে। বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘এমন এক ব্যক্তিত্বকে

উদ্দেশ্য করে এই মন্তব্য করা হয়েছে, যিনি বিশ্ব ফুটবলের এক অনন্য

চরিত্র। এমন মন্তব্যের মাধ্যমে তাকে অসম্মান করা হয়েছে।’

পরিস্থিতি সামাল দিতে সোমবার পাল্টা বিবৃতি দিয়েছেন গ্রায়েতও।

তিনি বলেছেন, ‘স্বীকার করছি আমি ঠিক কথা বলিনি। তবে যেভাবে

বিষয়টাকে তুলে ধরা হয়েছে, তাতে আমার সাথে জিদানের তিক্ততা তৈরি

করার চেষ্টা করা হয়েছে। ফ্রান্সের সমস্ত মানুষের মতো আমিও তাকে

অত্যন্ত শ্রদ্ধা করি।’ যোগ করেছেন, ‘আমি জিদান সম্পর্কে যে মনোভাব

পোষণ করি, সেটা হয়তো আমার বিবৃতিতে প্রতিফলিত হয়নি।

তার জন্য নিঃশর্তভাবে ক্ষমা চেয়ে নিচ্ছি।’ ১৯৯৮ বিশ্বকাপে ফ্রান্সকে

চ্যাম্পিয়ন করার অন্যতম কারিগরকে জাতীয় দলের কোচ করতে মরিয়া

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রও। কিন্তু ফ্রান্সের কোচ হতে আগ্রহী জিদান ফিরিয়েছেন সব প্রস্তাব।

সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা

আরও আপডেট নিউজ জানতে ভিজিট করুন