• বুধ. ফেব্রু ১, ২০২৩

বন্যায় জরুরি পরিস্থিতির কবলে পশ্চিম অস্ট্রেলিয়া

জানু ৮, ২০২৩

বন্যায় জরুরি পরিস্থিতির কবলে পশ্চিম অস্ট্রেলিয়া

রেকর্ডভাঙা বন্যায় দূরবর্তী এলাকার জনগোষ্ঠী বিচ্ছিন্ন হয়ে যাওয়ার পর,

অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী অ্যান্টনি আলবানিস শনিবার বলেছেন,

তার সরকার পশ্চিম অস্ট্রেলিয়া রাজ্যের অধিবাসীদের

জন্য প্রয়োজনীয় সব ধরনের সহায়তা দিতে প্রস্তুত।

কিম্বারলি এই সপ্তাহে মারাত্মক খারাপ আবহাওয়ার কবলে পড়ে।

কিম্বারলি, যুক্তরাজ্যের আকারের চেয়ে প্রায় তিনগুণ বড়।

আবহাওয়ার এই রূপে, আগেকার এলি নামক একটি ক্রান্তীয়

ঘূর্ণিঝড়-এর সৃষ্টি হয়। আর এর প্রভাবে এই বিশাল অঞ্চলে ভারী বৃষ্টিপাত শুরু হয়।

সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত স্থানগুলোর মধ্যে ছিল ফিটজরয় ক্রসিং।

শহরটিতে প্রায় ১ হাজার ৩০০ লোকের বসবাস। এখানে বন্যা দেখা

দেয়ায় আকাশ পথে ত্রান-সামগ্রী সরবরাহ করা হয়।

কর্তৃপক্ষ বলেছে যে রাজ্যেটি স্মরণকালের খারাপ পরিস্থিতিতে রয়েছে।

আলবানিস বলেন, তার লেবার দলের সরকার পশ্চিম অস্ট্রেলিয়া

সরকারের সাথে স্বল্প জনসংখ্যার এই অঞ্চলের সঙ্কট নিয়ে গঠনমূলকভাবে

কাজ করছে। এই অঞ্চলেই রিসোর্ট শহর ব্রুমও অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।

আলবানিজ ভিক্টোরিয়া রাজ্যের গিলং শহরে সংবাদদাতাদের

বলেন, এই বন্যার একটি বিধ্বংসী প্রভাব রয়েছে। ওই সব জনগোষ্ঠির

অনেকেই কঠোর পরিস্থিতি রয়েছে আর ওখানে সম্পদ সহজলভ্য নয়।

তিনি বলেন, তবে, আমার সরকার অনুরোধ অনুযায়ী যেকোনো সহায়তা করতে প্রস্তুত।

পশ্চিম অস্ট্রেলিয়ার জরুরি পরিষেবা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, বন্যাকবলিত

জনগোষ্ঠীকে সহায়তা করার জন্য অস্ট্রেলীয় প্রতিরক্ষা বাহিনীর বিমান

ব্যবহার করা হচ্ছে এবং চিনুক হেলিকপ্টারগুলো বন্যা

কবলিতদের স্থানান্তরে সহায়তা করার জন্য রওনা হয়েছে।

দেশটির আবহাওয়া পূর্বাভাস সংস্থা জানিয়েছে, রাজ্যটিতে এখন আর

মারাত্মক আবহাওয়া বিরাজ করছে না। তবে, পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ

অব্যাহত থাকবে এবং প্রয়োজনে আরো সতর্কতা জারি করা হবে।

আরও আপডেট নিউজ জানতে ভিজিট করুন