• বুধ. ফেব্রু ১, ২০২৩

সেনেগালকে হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে ইংল্যান্ড

ডিসে ৫, ২০২২

সেনেগালকে হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে ইংল্যান্ড

আফ্রিকান দেশ সেনেগালকে বিদায় করে চলমান কাতার বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করেছে ইংল্যান্ড।

রবিবার মধ্যরাতে দোহার আল খোরের আল বায়াত

স্টেডিয়ামে প্রি-কোয়ার্টার ফাইনালে সেনেগালকে ৩-০

গোলে হারিয়েছে ইংলিশরা। দাপুটে জয়ে ফুটবলের

জনকদের হয়ে একটি করে গোল করেন মিডফিল্ডার

জর্ডান হেন্ডারসন, অধিনায়ক ও তারকা ফরোয়ার্ড হ্যারি

কেন এবং তরুণ স্ট্রাইকার বুকায়ো সাকা। ২০১৮ রাশিয়া

বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে খেলা ইংলিশরা এবার শেষ

আটের লড়াইয়ে মুখোমুখি হবে বর্তমান বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ফ্রান্সের।

সেমির টিকিট কাটার এই ধুন্ধুমার ম্যাচটি হবে আগামী শনিবার রাত ১টায়।

এর আগে পোল্যান্ডকে ৩-১ গোলে হারিয়ে শেষ আট নিশ্চিত করেছে ফরাসিরা।

সেনেগালের বিরুদ্ধে স্পষ্ট ফেভারিট হয়েই মাঠে নামে ইংল্যান্ড।

গ্রুপ পর্বে আসরে সর্বোচ্চ ৯ গোল করা দলটি শুরু থেকে আক্রণাত্মক খেলতে থাকে।

কিন্তু ম্যাচের প্রথম আধাঘণ্টায় তেমন বলার মতো আক্রমণ শাণাতে পারেনি কোচ গ্যারেথ সাউথগেটের দল।

বরং এ সময়ে সহজ সুযোগ নষ্ট করে সেনেগাল। ২৩

মিনিটে ম্যাচের প্রথম ভালো সুযোগ সৃষ্টি করে আফ্রিকান চ্যাম্পিয়নরা।

এসময় মিডফিল্ডার বুলয়ালে ডিয়ার ভলি ইংলিশ

ডিফেন্ডার জন স্টোন্সের হাঁটুতে লেগে প্রতিহত হয়। এরপর

বল পেয়ে যান সেনেগালের ফরোয়ার্ড ইসমাইলা সার। কিন্তু

ইংলিশ গোলরক্ষক জর্ডান পিকফোর্ডের চ্যালেঞ্জের মুখে

ইসমাইলা খুব কাছ থেকে উড়িয়ে মারলে হাঁফ ছাড়ে

ইংল্যান্ড। এই আক্রমণে নাটকীয়তা ছিল আরও। প্রথম

দফায় বল স্টোন্সের পায়ে লেগে তার হাতে লাগলে পেনাল্টির আবেদন করে সেনেগাল।

যদিও রেফারি সাড়া দেয়নি; ভিএআরেও বাতিল করে দেয়া হয় আবেদন।

৩২ মিনিটে আবারো ইংল্যান্ডের রক্ষণ ভেঙে বক্সে ঢুকে পড়েন ডিয়া।

এবার তার শট কোনোরকমে এক হাতে ফেরান ইংলিশ গোলরক্ষক।

৩৮ মিনিটে লক্ষ্যে নেওয়া প্রথম শটেই এগিয়ে যায় ইংল্যান্ড।

এ সময় অধিনায়ক হ্যারি কেনের পাস ধরে বাঁ দিক দিয়ে

আক্রমণে উঠে জুড বেলিংহ্যাম বল বাড়ান ডি বক্সের।

সেখান থেকে প্লেসিং শটে লক্ষ্যভেদ করেন জর্ডান

হেন্ডারসন (১-০)। গোলের দেখা পেয়ে ছন্দ খুঁজে পায়

ইংল্যান্ড। দুই মিনিট পর ব্যবধান দ্বিগুণ হতে পারত। কিন্তু

ভালো পজিশনে বল পেয়েও ব্যর্থ হন কেন। রাশিয়া

বিশ্বকাপের গোল্ডেন বুট জয়ী এই তারকা অবশেষে

গোলের দেখা পান প্রথমার্ধের যোগ করা সময়ে (৪৫+৩

মিনিট)। এ সময় ফিল ফোডেনের পাস থেকে দারুণ শটে

গোল করেন ইংলিশ অধিনায়ক (২-০)। এবারের বিশ্বকাপে

এটি কেনের প্রথম গোল। গ্রুপ পর্বে তিনটি অ্যাসিস্ট করা

কেনের বিশ্বকাপে মোট গোল হলো ৭টি। রাশিয়া বিশ্বকাপে

সর্বোচ্চ ৬ গোল করে গোল্ডেন বুট জিতেছিলেন ইংলিশ অধিনায়ক।

বিরতির পরও প্রাধান্য বিস্তার করে খেলে ইংলিশরা।

৫৭ মিনিটে ম্যাচে ফোডেনের দ্বিতীয় অ্যাসিস্টে বিজয়ী

দলের হয়ে তিন নম্বর গোল করেন সাকা (৩-০)। বাকি

সময়ে কোনো দলই তেমন ভাল সুযোগ সৃষ্টি করতে

পারেনি। শেষ পর্যন্ত সহজ জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে ইংলিশরা।

এবার তাদের মিশন ফরাসিদের বিরুদ্ধে শেষ আটের লড়াই।

আরও আপডেট নিউজ জানতে ভিজিট করুন