• শনি. জানু ২৮, ২০২৩

২৪ বছর আগে ওরতেগাকে যা বলে খেপিয়েছিলেন ফন ডার সার

ডিসে ৮, ২০২২

২৪ বছর আগে ওরতেগাকে যা বলে খেপিয়েছিলেন ফন ডার সার

আরও একটি কোয়ার্টার ফাইনালের লড়াই। আরও একবার মুখোমুখি আর্জেন্টিনা ও নেদারল্যান্ডস।

২৪ বছর আগে ফ্রান্স বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে

ডেনিস বার্গক্যাম্পের অসাধারণ এক গোলে আর্জেন্টিনাকে

বিদায় করে দিয়েছিল ডাচরা। সে ম্যাচে বার্গক্যাম্পের সেই

গোল ছাপিয়েও নেদারল্যান্ডস গোলকিপার এডউইন ফন

ডার সারের আর্জেন্টাইন ‘নাম্বার টেন’ আরিয়েল

ওরতেগাকে উত্ত্যক্ত করা ও এরপর ফন ডার সারকে ওরতেগার ঢুস স্মরণীয় হয়ে আছে।

সে ম্যাচে নেদারল্যান্ডস ২–১ গোলে হারিয়েছিল আর্জেন্টিনাকে।

১২ মিনিটে প্যাট্রিক ক্লাইভার্টের গোলে এগিয়ে গিয়েছিল নেদারল্যান্ডস।

তবে ১৭ মিনিটেই রবার্তো আয়ালা সমতা ফিরিয়ে নিয়ে এসেছিলেন।

দুর্দান্ত প্রতিদ্বন্দ্বিতার মধ্যে ফন ডার সারের কল্যাণে মুহূর্তেই

মাথা গরম করে আর্জেন্টিনাকে বিপদে ফেলে দেন আয়ালা।

লাল কার্ড দেখেন তিনি। যদিও নেদারল্যান্ডসের আর্থার

ন্যুমান এর আগেই লাল কার্ড দেখেছিলেন। ওরতেগার

লাল কার্ডে ‘সুবিধা’ উপভোগ করতে পারেনি আর্জেন্টিনা।

ম্যাচের ৯০তম মিনিটে বার্গক্যাম্প দুর্দান্ত এক গোল করে নেদারল্যান্ডসকে সেমিফাইনালে তুলে দেন।

সেদিন ওরতেগাকে কী বলে উত্ত্যক্ত করেছিলেন ফন ডার

সার! নেদারল্যান্ডসের একটি সংবাদমাধ্যমকে তিনি

বলেছেন, তিনি ২৪ বছর আগে ওরতেগাকে যেটি বলেছেন,

সেটি মোটেও ভালো কিছু নয়। তিনি আর্জেন্টাইন তারকার

‘মা’ তুলে কথা বলেছিলেন, ‘সেদিন আমি ওরতেগাকে যা

বলেছিলাম, সেটি নিয়ে আমি মোটেও গর্বিত হতে পারি না।

তবে এটা ঠিক, খেলার দৃষ্টিকোণ থেকে সেটি দলকে উপকৃত করেছিল।’

ম্যাচের স্মৃতিচারণা করেছেন ফন ডার সার, ‘খেলাটা দুর্দান্ত হয়েছিল।

ক্লাইভার্টের গোলের পর ক্লদিও লোপেজের গোলে

আর্জেন্টিনা সমতায় ফিরেছিল। গোলটা খুব ভালো ছিল।

আর্জেন্টিনা দলে সেদিন গ্যাব্রিয়েল বাতিস্তুতার মতো গোল স্কোরার ছিল।’

বিশ্বকাপে নেদারল্যান্ডস–আর্জেন্টিনা ম্যাচ এরপর হয়েছে আরও দুটি।

২০০৬ সালে জার্মানি বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্বে এ দুই দলের

ম্যাচ গোলশূন্য ড্র হয়েছিল। ২০১৪ বিশ্বকাপ

সেমিফাইনালেও ১২০ মিনিট খেলে দুই দল গোলের দরজা

খুলতে পারেনি। পরে টাইব্রেকারে নেদারল্যান্ডসকে হারিয়ে আর্জেন্টিনা জায়গা করে নিয়েছিল ফাইনালে।

আরও আপডেট নিউজ জানতে ভিজিট করুন